নিজস্ব সংবাদদাতা: গত কয়েক মাসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে সামনে রেখে একটা নির্দিষ্ট স্লোগান তুলেই ভোটযুদ্ধ লড়তে নেমেছে তৃণমূল- ‘বাংলা নিজের মেয়েকে চায়’। ঘাসফুল শিবিরের সেই আহ্বানে সাড়া দিয়েই গতকাল তৃণমূলের হয়ে প্রচার করতে মুম্বই থেকে কলকাতায় এলেন আরেক ‘বাংলার মেয়ে’ জয়া বচ্চন। সূত্রের খবর, গতকাল সন্ধেবেলায় তিনি দমদম বিমানবন্দরে নামেন। আজ, সোমবার সাড়ে ৩টে নাগাদ তিনি প্রথমে তৃণমূল ভবনে সাংবাদিক সম্মেলন করবেন। তারপর সাড়ে ৫ টায় টালিগঞ্জ বিধানসভা কেন্দ্রের হেভিওয়েট তৃণমূল প্রার্থী তথা রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের সমর্থনে রোড শো করবেন অমিতাভ-জায়া।

উল্লেখ্য, সমাজবাদী পার্টির সঙ্গে জয়া ভাদুড়ির সম্পর্ক দীর্ঘদিনের। তিনি গত চারবার সপার রাজ্যসভার সাংসদ মনোনীত হয়েছেন। এদিকে, এবারের বঙ্গ-নির্বাচনে মুলায়ম-অখিলেশের পার্টি তৃণমূলকে নৈতিক সমর্থন দিয়েছে। উল্লেখ্য, এর আগে নন্দীগ্রামে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রচার সভা চলাকালীন দলের প্রতিনিধি হিসেবে কিরণময় নন্দকে পাঠিয়েছিলেন অখিলেশ যাদব। এবার জয়া আসছেন তৃণমূলের হয়ে প্রচারে করতে। ভোটের প্রচারে জয়ার উপস্থিতি আসন্ন তৃতীয় দফার ভোটে তৃণমূলকে অনেকটা মাইলেজ দিতে পারে। সূত্রের খবর, পুরোপুরি তৃণমূলের তরফেই তাঁকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আন্তরিক ডাকে সাড়া দিয়েই প্রচারে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বাংলার ‘ধন্যি মেয়ে’।

শোনা যাচ্ছে, আজ অর্থাৎ ৫ তারিখ থেকে আগামী ৮ তারিখ পর্যন্ত তিনি কলকাতাতেই থাকতে পারেন। তারই মধ্যে একাধিক জায়গায় প্রচার সারবেন। তবে আপাতত সোমবার টালিগঞ্জ অর্থাৎ টলিপাড়ায় রোড শো করবেন জয়া বচ্চন। প্রসঙ্গত, জয়া মূলত কলকাতা শহরেরই বাসিন্দা। জয়া ভাদুড়ি থেকে জয়া বচ্চন- এটুকু পরিচয় বদল ছাড়া বঙ্গকন্যার আর তেমন কোনও পরিবর্তনই হয়নি। গত কয়েক দশক ধরে তিনি পাকাপাকিভাবে মুম্বইবাসী হলেও তাঁর সঙ্গে কলকাতার যোগাযোগ অক্ষুণ্ণ ছিল, আছেও। বেশ কয়েকবার কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে মমতার ডাকে সাড়া দিয়ে অমিতাভ-জয়া সপরিবারে শহরে এসেছেন। ফলে ব্যক্তিগত কিংবা রাজনৈতিক দিক থেকে তিনি তৃণমূলের হয়ে প্রচারে এসেছেন বলেই মত রাজনৈতিক মহলের। এখন দেখার ভোট প্রচারে জয়ার উপস্থিতিতে তৃতীয় দফার ভোটে তৃণমূল বাজিমাত করতে পারে কিনা!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here