নিজস্ব সংবাদদাতা: মার্চের মাঝামাঝি থেকেই ভারতে বিপুল হারে বৃদ্ধি পেয়েছে মারণ করোনা ভাইরাস। কোভিডের সেকেন্ড ওয়েভে জেরে বেসামাল গোটা দেশ। একই ভয়াবহ পরিস্থিতি রাজধানী দিল্লীরও। সেখানেও দৈনিক সংক্রমণ লাগাম ছাড়া। এর জেরে একপ্রকার বাধ্য হয়ে আজ রাত থেকে আগামী এক সপ্তাহের জন্য দিল্লীতে লকডাউন জারি করল কেজরিওয়াল সরকার। গতকালই সাংবাদিক বৈঠকে দিল্লীর ভয়াবহ পরিস্থিতির কথা জানাতে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল জানান, গোটা দিল্লীতে আর মাত্র ১০০টি আইসিইউ বেড রয়েছে।

পাশাপাশি পর্যাপ্ত অক্সিজেনেরও অভাবও প্রশাসনের কপালে চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে। তাই করোনার দৈনিক সংক্রমণের চেন ভাঙতেই সেখানে আগামী ৭ দিনের জন্য জারি করা হচ্ছে ১৪৪ ধারা। আজ অর্থাৎ সোমবার রাত ১০টা থেকে আগামী সোমবার সকাল পাঁচটা পর্যন্ত লাগু থাকবে লকডাউন। সাংবাদিক বৈঠকে মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল জনতার কাছে আর্জি জানান, “স্বাস্থ্য পরিষেবা যাতে ভেঙে না পড়ে তার জন্য এই ছোট লকডাউন। যেভাবে সংক্রমণ মাত্রা ছাড়াচ্ছে তার জন্য প্রয়োজন রয়েছে এটি।” একইসঙ্গে পরিযায়ী শ্রমিকদের কাছেও দিল্লী ছেড়ে না যাওয়ার আবেদন জানিয়েছেন কেজরিওয়াল।

কেজরিওয়ালের আশ্বাস, সাময়িকভাবে পরিস্থিতি সামাল দিতেই এই সীমিত সময়ের লকডাউন জারি করা হয়েছে। উল্লেখ্য, রবিবারই দিল্লীতে এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক দৈনিক সংক্রমণ হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় সেখানে ২৫,৪৬২ জন নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এর জেরেই আজ লকডাউন জারির কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। এই ১ সপ্তাহ নিত্যপ্রয়োজনীয় সামগ্রী ছাড়া সেখানে সমস্ত দোকানপাট বন্ধ থাকবে। সকাল ৭টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে প্রয়োজনীয় সামগ্রীর দোকান। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে রাজ্যের বাসিন্দাদের না বেরনোর আর্জিও করেছে সরকার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here