কানহাইয়ালালের হত্যাকারীদের পরবর্তী টার্গেটে কি কোনও হেভিওয়েট বিজেপি মন্ত্রীর নাম রয়েছে?

নবী বিতর্কে প্রাক্তন বিজেপি নেত্রী নূপুর শর্মাকে সমর্থন করায় রাজস্থানের উদয়পুরে খুন হয়েছেন টেলর কানহাইয়ালাল। এখন প্রতিনিয়ত এই হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের নাম প্রকাশ ঘটছে। টিভি চ্যানেল ‘আজ তক’-এর স্পেশাল ইনভেস্টিগেশন টিম তদন্তের পর দাবি করেছে যে খুনের সঙ্গে জড়িত রিয়াজ নামে এক মৌলবাদী গত তিন বছর ধরে বিজেপির অনুষ্ঠানে অংশ নিচ্ছিল। এমন পরিস্থিতিতে এখন প্রশ্ন উঠছে রিয়াজের উদ্দেশ্য কি বিজেপি নেতাদের কাছে পৌঁছে দলের বড় নেতাদের খুন করা ছিল? জাতীয় তদন্ত সংস্থা (NIA) বর্তমানে কানহাইয়ালাল হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করছে। একই সময়ে, এনআইএ-র তদন্তে এটিও প্রকাশ পেয়েছে যে রিয়াজ এবং তার সহযোগী ঘৌস হিন্দুদের মধ্যে ভীতি জাগাতে সোশ্যাল মিডিয়ায় মহম্মদ কানহাইয়ালাল হত্যাকাণ্ড লাইভ সম্প্রচার করতে চেয়েছিল।

টিভি চ্যানেলের বিশেষ তদন্তকারী দল উদয়পুরে গিয়ে বিজেপির স্থানীয় মুসলিম নেতা ইরশাদ চেইনওয়ালার সঙ্গে দেখা করে। চেইনওয়ালার সঙ্গে রিয়াজের ছবি প্রকাশ্যে এসেছে। চ্যানেলটির প্রতিবেদককে ইরশাদ বলেন, প্রায় তিন বছর ধরে বিজেপির অনুষ্ঠানে যোগ দিতেন রিয়াজ। বিজেপি নেতাদের সঙ্গেও ছবি তুলতেন তিনি। প্রাথমিকভাবে রিয়াজকে বিজেপির কর্মসূচিতে নিয়ে যাওয়া ব্যক্তির নাম মোহাম্মদ তাহির। ইরশাদ জানান, তাহির সাবিনার বাসিন্দা। এ বিষয়ে চ্যানেলটি তাহিরের সঙ্গে দেখা করার চেষ্টা করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। সাবিনার যে বাড়িতে তাহির ভাড়া নিয়ে থাকতেন সেটিও তিনি খালি করে দিয়েছেন।

কানহাইয়ালালের হত্যা

এর আগে বৃহস্পতিবার জানানো হয়েছিল যে উদয়পুর হত্যা মামলার অভিযুক্ত রিয়াজ তার বাইকের জন্য 2008 সালের মুম্বাই সন্ত্রাসী হামলার তারিখের সাথে মিলে যাওয়া একটি নম্বর নিয়েছিল। তার বাইকের নম্বর 2611। একই সময়ে, মুম্বাইয়ে সন্ত্রাসী হামলার তারিখ 26/11। এমতাবস্থায় আশঙ্কা করা হচ্ছে, তিনি অনেক আগেই সন্ত্রাসের পথে যাত্রা শুরু করেছিলেন। এর আগে রিয়াজ ও গাউস মোহাম্মদও পাকিস্তানে গিয়ে সেখানকার একটি প্রতিষ্ঠান থেকে প্রশিক্ষণ নিয়েছিলেন বলেও জানা গেছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here