নিজস্ব সংবাদদাতা: প্রথম এই দৃশ্য দেখা গিয়েছিল বিজেপি শাসিত বিহারে। আর এবার সেই একই দৃশ্য ধরা পড়ল যোগীরাজ্য উত্তরপ্রদেশেও। সেখানে গঙ্গার ধারে এসে জমা হল পচা গলা মৃতদেহের স্তুপ। গাজিপুরের এই ঘটনায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকা জুড়ে। এই নিয়ে টানা দু’দিন গঙ্গার ধারে মৃতদেহ ভেসে আসতে দেখা গেল। দেশ জুড়ে করোনা অতিমারী পরিস্থিতি যে কোন পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে, এই ঘটনা আরও একবার তা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল।

গতকাল বিহারের বক্সারের যে ঘাটে সারি সারি মৃতদেহ এসে জড়ো হয়েছিল, এদিনের ঘটনাস্থল তার থেকে খুব বেশি দূরে নয়। মাত্র ৫৫ কিলোমিটারের ব্যবধানেই ফের দেখা গেল একই ছবি। নদীর ধারে ভেসে আসা দেহগুলি করোনা রোগীরই, তেমনটাই অনুমান করছে প্রশাসন এবং সাধারণ মানুষ। এদিনের ঘটনায় গাজিপুরের জেলা ম্যাজিস্ট্রেট এমপি সিং বলেছেন, “আমরা খবর পেয়েছি। আমাদের আধিকারিকরা খবর পেতেই ঘটনাস্থলে পৌঁছেছেন। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে। আমরা জানার চেষ্টা করছি বডিগুলো কোথা থেকে ভেসে এখানে এল।”

অন্যদিকে প্রশাসনের তরফে গাফিলতির অভিযোগ তুলেছেন গাজিপুরের স্থানীয় বাসিন্দারা। তাঁদের অভিযোগ, “আমরা প্রশাসনকে জানানোর পরেও সেভাবে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। এভাবে চলতে থাকলে আমরা সবাই করোনায় আক্রান্ত হয়ে যাব।” বলা হচ্ছে, সৎকার করতে না পেরে কোভিডের মৃতদেহ গুলি পরিবারের অসহায় লোকজন গঙ্গায় ভাসিয়ে দিয়েছেন। কিন্তু কোভিড রোগীদের এই মৃতদেহ থেকেই এবার এলাকায় সংক্রমণ ছড়াতে পারে, সেই আশঙ্কায় এখন প্রহর গুনছেন স্থানীয়রা।

উল্লেখ্য, গতকাল বিহারের ছবিটা ছিল অনেকটা এমনই। সোমবার সকালে উত্তরপ্রদেশের বর্ডার ঘেঁষা বিহারের বক্সার এলাকায় নদীর জলে ভাসতে দেখা যায় একাধিক মৃতদেহ। প্রায় শ’খানেক দেহ ভাসতে ভাসতে পাড়ে এসে জড়ো হয়। সকাল সকাল ঘুম থেকে উঠেই এই ভয়াবহ দৃশ্য দেখতে পান এলাকার বাসিন্দারা। তাঁরাই সঙ্গে সঙ্গে স্থানীয় পুলিশে খবর দেন। সেইসময় প্রশাসনের দাবি ছিল দেহ গুলি এসেছে উত্তরপ্রদেশ থেকে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here