ভাবুন তো কোনও দেশে কোনও দামি বিলাসবহুল গাড়ি চুরি হয়ে অন্য কোনও দেশে পাওয়া গেলে চুরির উপায় এবং চোরের মানসিক প্রবৃত্তি কেমন হবে তা সম্মন্ধে আন্দাজ করা যায়। এমন একটি ঘটনা সামনে এসেছে যখন পাকিস্তান কাস্টমস কর্মকর্তারা শনিবার অভিযানের সময় করাচির একটি বাংলো থেকে ব্রিটেন থেকে চুরি করা একটি বিলাসবহুল গাড়ি উদ্ধার করেছে।

আসলে, এই মামলাটি প্রকাশ্যে এসেছে যুক্তরাজ্যের ন্যাশনাল ক্রাইম এজেন্সি গাড়ি চুরির বিষয়ে জানানোর পর। সংস্থাটির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তথ্যের ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা করাচির একটি বাংলোতে অভিযান চালিয়ে সেখান থেকে এই দামি গাড়িটি উদ্ধার করেন। আরেকটি বাংলো থেকে লাইসেন্সবিহীন অস্ত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

তথ্য অনুযায়ী, সূত্র জানায় যে এই দামী গাড়িটি কয়েক সপ্তাহ আগে লন্ডনে চুরি হয়েছিল এবং জড়িত চক্রটি পূর্ব ইউরোপের দেশটির শীর্ষ কূটনীতিকের নথি ব্যবহার করে গাড়িটি পাকিস্তানে নিয়ে এসেছিল। সেই কূটনীতিককেও তার সরকার ফেরত ডেকেছে বলে জানানো হয়েছে।

লন্ডন

এই গাড়িটির দাম $300,000 (প্রায় 60 মিলিয়ন পাকিস্তানি রুপি) এর বেশি এবং এটি ব্র্যান্ডের সবচেয়ে বড় এবং সবচেয়ে ব্যয়বহুল সেডান। পর্যাপ্ত কাগজপত্র না দেওয়ায় গাড়ি বিক্রি করা বাড়িওয়ালা ও দালালকে হেফাজতে নিয়েছে কর্তৃপক্ষ। তবে, কিছু রিপোর্ট অনুযায়ী, পাকিস্তানে যে ব্যক্তি এই গাড়িটি পেয়েছেন তিনি বলেছেন যে তিনি এটি কিনেছেন। বর্তমানে আরও তদন্ত চলছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here