২০২২ সালের এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হতে পারতো পাকিস্তান দল। পাকিস্তানের বোলাররা ভালো পারফর্ম করলেও ফিল্ডারদের সঙ্গ পায়নি। দলের সহ-অধিনায়ক, শাদাব খান দুটি ক্যাচ ফেলেন, একটি তার হাতে, যখন তিনি একটি ক্যাচের সময় তার এক সতীর্থের সাথে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। যার কারণে ২০২২ সালের এশিয়া কাপের ফাইনালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হারের দায় নিয়েছেন শাদাব খান।

১৭তম ওভারের শেষ বলে বাউন্ডারি লাইনে শ্রীলঙ্কান ব্যাটসম্যান ভানুকা রাজাপাকসের ক্যাচ ফেলে দেন শাদাব খান, ১৯তম ওভারে যখন আসিফ আলী ভানুকার ক্যাচ নিচ্ছিলেন, তখন শাদাব খান ও আসিফের মধ্যে সংঘর্ষ হয় এবং ক্যাচ মিস হয়। , পাশাপাশি বলও সীমানা পেরিয়ে যায় ৬ রান। এ ছাড়া আরও কয়েকজন ফিল্ডারও ভুল করেছেন, যার খেসারত দিতে হয়েছে দলকে।

পাকিস্তান

একইসঙ্গে শিরোপা ম্যাচে হারের পর শাদাব খান হারের দায় নিয়ে টুইট করেন, লেখেন, “ক্যাচ জেতার ম্যাচ। দুঃখিত, আমি এই হারের দায় নিচ্ছি। আমি আমার দলকে হতাশ করেছি। দলের জন্য। ইতিবাচক। পক্ষ ছিল নাসিম শাহ, হারিস রউফ এবং মোহাম্মদ নওয়াজ ছাড়া পুরো বোলিং আক্রমণটি দুর্দান্ত ছিল। মোহাম্মদ রিজওয়ান কঠোর লড়াই করেছিলেন। পুরো দল তাদের সেরাটা করেছে। শ্রীলঙ্কাকে অভিনন্দন।”

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে এশিয়া কাপ 2022-এর ফাইনাল ম্যাচে পাকিস্তানের অধিনায়ক বাবর আজম টস জিতে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেন। এমতাবস্থায় ভানুকা রাজাপাকসের ৪৫ বলে ৭১ রানের ইনিংসের ওপর ভর করে ১৭০ রান করে শ্রীলঙ্কা। 171 রানের লক্ষ্য তাড়া করতে গিয়ে পাকিস্তান দল 147 রানে গুটিয়ে যায় এবং ম্যাচটি 23 রানে হেরে যায়। পাকিস্তান এই মৌসুমে তিনটি পরাজয়ের সম্মুখীন হয়েছে, যার মধ্যে শ্রীলঙ্কা পরাজিত হয়েছে দুবার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here