বল করার সময় কনুই ভাঙত বিশ্ববিখ্যাত ফাস্ট বোলার শোয়েব আখতারের। সরাসরি অভিযোগ তুললেন ভারতের প্রাক্তন ওপেনার বীরেন্দ্র সেহবাগ। বীরু বলেন, শোয়েব আখতার নিজেও এই বিষয়ে নিশ্চিত। তিনি নিজেও জানতেন যে তিনি বল ছুঁড়তেন। সে বিষয়ে বীরু তার নির্বাসনেরও উল্লেখ করেন। তাঁর প্রশ্ন, কেন আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল শোয়েবকে নির্বাসিত করেছিল?

প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান পেসার ব্রেট লি-র নাম উল্লেখ করেন এ বিষয়ে। তিনি বলেন, ব্রেট লির হাত ভাঙতো না। তাই সেই বল স্বাভাবিক ভাবেই খেলতেন সেহবাগ। নিউজিল্যান্ডের প্রাক্তন পেসার শেন বন্ডকে খেলা সবচেয়ে কঠিন ছিল বলে ধারণা সেহবাগের। বল অসাধারণ সুইং করাতেন বন্ড। বাইরের বল অনায়াসে ভেতরে ঢুকে আসতো নিমেষে।

বীরু

সেহবাগ বলেন, কিছু রান দেওয়ার পর আরও আগ্রাসী হয়ে উঠতেন শোয়েব। বোলিংয়ের কোন বিকল্প বেছে নেবেন তা নিশ্চিত ছিল না। ওনার কাছে অনেকরকম বোলিং বিকল্প ছিল, যেমন বিমার বা একটা গোড়ালি ভেঙে দেওয়ার মতো ইয়র্কার। তাও শোয়েবের বিরুদ্ধে ৯০-এর ওপর গড় রান আছে বীরুর। একটা আগ্রাসী মানসিকতা বরাবর লক্ষ করা গেছে বীরুর মধ্য। তাঁকে এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘শচীন, সৌরভ, দ্রাবিড় বা লক্ষ্মণের মতো অত বড় বড় খেলোয়াড়ের মাঝে নিজের ছাপ রেখে যাওয়ার আর কোনও বিকল্প পদ্ধতি আমার জানা ছিল না।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here