মুক্তি পেতে চলেছে আমির খানের ছবি লাল সিং চাড্ডা। আমিরের ছবি মুক্তির আগে সবসময়ই অনেক বিতর্ক হয়। এবারও লাল সিং চাড্ডা মুক্তির আগে ছবিটি বয়কটের দাবি উঠেছে। এ নিয়ে প্রতিক্রিয়া এসেছে আমির খান ও কারিনা কাপুর খানের। আমির বলেছেন যে তিনি খুবই দুঃখিত যে লোকেরা ভাবে যে আমি ভারতকে পছন্দ করি না। কিন্তু এটা যে মত না. আমি ভারতকে খুব পছন্দ করি। আমাকে নিয়ে মানুষের চিন্তাভাবনা পরিবর্তন করা উচিত। একই সঙ্গে এ নিয়ে কঙ্গনা রানাউতের প্রতিক্রিয়াও এসেছে।

ইনস্টাগ্রামের গল্পে কঙ্গনা লিখেছেন, ‘লাল সিং চাড্ডাকে নিয়ে যত নেতিবাচকতা চলছে তার পিছনে আমির খান নিজেই মাস্টারমাইন্ড বলে মনে করি। এই বছর কোনও হিন্দি ছবি দেখা যায়নি, শুধুমাত্র কমেডি সিক্যুয়েল এবং দক্ষিণের ছবি যা ভারতীয় সংস্কৃতিকে চিত্রিত করে বা স্থানীয় গন্ধ রয়েছে৷ হলিউড ছবির রিমেক কাজ করে না। কিন্তু এখন তিনি ভারতকে অসহিষ্ণু বলবেন।

কঙ্গনা আরও লিখেছেন, ‘হিন্দি ছবিতে দর্শকের স্পন্দন বুঝতে হবে। এখানে হিন্দু-মুসলমানের কথা নয়। আমির খান জি হিন্দুফোবিক পিকে তৈরি করেন এবং ভারতকে একটি অসহিষ্ণু দেশ বলে অভিহিত করেন এবং এর মাধ্যমে তার জীবনের সবচেয়ে বড় হিট ছবি উপহার দেন। দয়া করে এটাকে ধর্ম বা মতাদর্শের সাথে যুক্ত করা বন্ধ করুন, এটা তার খারাপ অভিনয় এবং খারাপ ছবি থেকে আলাদা।

লাল সিং চাড্ডা

এখন দেখা যাক কঙ্গনার এই বক্তব্যে আমির কেমন প্রতিক্রিয়া দেন। যাইহোক, আমরা আপনাকে জানিয়ে রাখি যে এই বার্তার মাধ্যমে কঙ্গনা কার্তিক আরিয়ানের ছবি ভুল ভুলাইয়া 2-এর প্রশংসা করেছেন এবং আমিরকেও নিশানা করেছেন। কঙ্গনা সেই অভিনেতাদের মধ্যে একজন যারা প্রতিটি ইস্যুতে তাদের প্রতিক্রিয়া দেন, এমনকি এটি অন্য অভিনেতার ছবি হলেও।

কঙ্গনার ছবি ধাকদও কিছুদিন আগে মুক্তি পেয়েছে। যদিও ছবিটি ফ্লপ হয়। অভিনেত্রীর আশা ছিল তার ছবিতে কাজ হবে, কিন্তু তা হয়নি। যদিও কঙ্গনাও এই সত্যটা মেনে নিয়েছেন। এখন তিনি তার ছবি ইমার্জেন্সির জন্য কঠোর পরিশ্রম করছেন যেখানে তিনি ইন্দিরা গান্ধীর ভূমিকায় অভিনয় করছেন। এ ছাড়া ছবিটি পরিচালনাও করছেন তিনি। কঙ্গনা ছাড়াও এই ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন অনুপম খের এবং শ্রেয়াস তালপাড়ে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here