নিজস্ব সংবাদদাতা: বাংলায় বিধানসভা নির্বাচন ঘিরে বর্তমানে উত্তাল রাজ্য রাজনীতি। প্রতিদিন বইছে কুকথার বন্যা। এরই মাঝে গতকাল বিস্ফোরক মন্তব্য করলেন বিজেপি নেত্রী অগ্নিমিত্রা পাল। বললেন, নির্বাচনে হেরে কন্ডোমের দোকান দেবেন তৃণমূলের সায়নী ঘোষ। প্রতিপক্ষকে নিশানা করে বিজেপি নেত্রীর এহেন মন্তব্যে তীব্র বিতর্ক শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। তৃণমূলের তারকা প্রার্থী সায়নী ঘোষের নাম করে এই ধরণের কুরুচিকর আক্রমণ করে অগ্নিমিত্রা পাল বিজেপির অস্বস্তি আরও বাড়িয়ে দিলেন।

অগ্নিমিত্রার দাবি, “২ মে’র পর উনি কন্ডোমের দোকান খুলবেন। নাকি সিনেমায় নামবেন তা উনিই জানেন”। তবে পাল্টা জবাব দিতে ছাড়েননি সায়নীও। অগ্নিমিত্রার এই তীব্র কটাক্ষের জবাবে তৃণমূলের তারকা প্রার্থী সায়নী বলেন, “আমি ভেবেছিলাম উনি আমার থেকে বড়। কিন্তু এমন রুচিহীন মানুষ জানতাম না। ওনার ভাষাই ওনার পরিচয় ও বংশপরিচয়”। গতকাল প্রচারে বের হওয়ার আগে সোশাল মিডিয়ায় স্থানীয় ইস্তেহার প্রকাশ করেন অগ্নিমিত্রা পাল। ফেসবুকে ইস্তেহার উল্লেখ করেন বিধায়ক হলে তিনি আসানসোল দক্ষিণে ‘ল’ কলেজ ও মেডিক্যাল কলেজ তৈরি করতে উদ্যোগ নেবেন। অগ্নিমিত্রার ‘ল’ কলেজ ও মেডিক্যাল কলেজ নিয়ে এদিন সায়নীকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, “উনি (অগ্নিমিত্রা) আসানসোলের ভূমিকন্যা। এতদিন কেন ওই কাজ করেননি?”

এরপর সায়নীর এই কটাক্ষের জবাব দিতে গিয়েই একেবারে মেজাজ হারান অগ্নিমিত্রা। তিনি বলেন, “উনি(সায়নী) সিনেমা থেকে এসেছেন। রাজনীতির কিছু জানেন না”। অগ্নিমিত্রার কথায়, “আমি সাধারণ বিজেপির কার্যকর্তা। যেখানে বিজেপির এমএলএ ও এমপিরা রাজ্য সরকারের অসহযোগিতায় কোনও কাজ করতে পারছেন না, সেখানে সাধারণ বিজেপি কর্মী হয়ে কি এই কাজ করা সম্ভব? আসলে উনি রাজনীতির বিষয়ে কিছু জানেন না। উনি সিনেমা করতেন। সরাসরি নেমে গিয়েছেন টিকিট পেয়ে’।

এরপরই সায়নীর করা পুরোনো এক ফেসবুক পোস্টের বিতর্ক প্রসঙ্গ মনে করিয়ে অগ্নিমিত্রা বলেন, “আমার মনে হয় ২ মের পর উনি কন্ডোমের দোকান খুলবেন। নাকি সিনেমায় নামবেন তা উনিই জানেন।” অগ্নিমিত্রার এই তীব্র কটাক্ষ সঙ্গে সঙ্গেই সায়নীর কানে পৌঁছায়। সায়নী ঘোষ প্রচারে ব্যস্ত ছিলেন ধেনুয়া অঞ্চলে। সেখান থেকে অগ্নিমিত্রার কটাক্ষের কড়া জবাব দেন সায়নীও। বলেন, “আমি ভেবেছিলাম উনি সফিস্টিকেটেড। কিন্তু আমি ওনার মতো এত নীচে নামতে পারব না।” আর এতকিছুর মাঝখানে ফ্যাসাদে পড়েছেন সাধারণ ভোটাররা। যেখানে ভোটের মুখে এভাবে কন্ডোম নিয়ে ছোঁড়াছুঁড়ি হচ্ছে, সেখানে আসানসোলের মানুষ কি সিদ্ধান্ত নেন, সেটাই দেখার।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here