অভিনেত্রী প্রকৃতি মিশ্রকে ভুবনেশ্বরের রাস্তায় লাঞ্ছিত করার ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পরে, এখন এই পুরো বিষয়টি অভিনেত্রীর বক্তব্যে উঠে এসেছে। অভিনেত্রী প্রকৃতি মিশ্র রবিবার সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, ‘প্রতিটি গল্পের দুটি দিক থাকে। দুর্ভাগ্যবশত, আমরা এমন এক সমাজে বাস করি যেখানে নারীর কথা না শুনেই তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ শুরু হয় ‘।

প্রকৃতি মিশ্র লিখেছেন, ‘আমি এবং আমার সহ-অভিনেতা বাবুশান উৎকল অ্যাসোসিয়েশন আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে যোগ দিতে চেন্নাই যাচ্ছিলাম। এ সময় বাবুশানের স্ত্রীসহ কয়েকজন গুণ্ডা তাকে মারধর শুরু করে এবং আমাকে শারীরিক ও মানসিকভাবে নির্যাতন করে। ভাইরাল হওয়া ভিডিওতে একজন মহিলাকে প্রকৃতিকে আক্রমণ করতে দেখা যায় এবং দেখা যায় চারপাশে দাঁড়িয়ে থাকা ভিড় এই ঘটনার শুধু একটি ভিডিও তৈরি করছে। তা সত্ত্বেও প্রকৃতি ক্রমাগত সাহায্যের জন্য চিৎকার করছিল।

কোনওভাবে প্রকৃতি গাড়ি থেকে বেড়িয়ে পালিয়ে গেলেও মহিলাটি তাঁকে অনুসরণ করতে থাকে।

অভিনেত্রী প্রকৃতি মিশ্র

প্রকৃতি লিখেছেন, ‘আমি অনুভব করি যে আমার কাজ এখনও শেষ হয়নি, এবং আমি মনে করি নারীর ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে আমার আরও অনেক কাজ করতে হবে।’ এই পোস্টে অনেকেই তাকে ট্রোল করেছেন এবং বলেছেন তিনি অন্যের স্বামী চুরি করেন। পোস্টে প্রকৃতি লিখেছেন, ‘হ্যাঁ, নারীর ক্ষমতায়ন হল একজন স্বামীকে তার স্ত্রীর কাছ থেকে কেড়ে নেওয়া বা তার বাবার কাছ থেকে সন্তান ছিনিয়ে নেওয়া। নারীর ক্ষমতায়ন সম্পর্কে সমাজ এটাই শিখছে। আপনাদের জন্য করতালি।’

কলিঙ্গা টিভির একটি প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাবুশান একটি ভিডিওতে আরও বলেছেন, ‘আপনারা সবাই আমার ভাইরাল ভিডিওগুলি দেখে অবশ্যই উপভোগ করছেন, সে বিষয়ে কিছু কথা বলি। আমি উৎকল দিবস উদযাপনে অংশ নিতে চেন্নাই এসেছিলাম এবং প্রকৃতি মিশ্রকেও অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। আমি এখানে আমার ছবির প্রচারের জন্য এসেছিলাম যেখানে প্রকৃতি আমার সাথে কাজ করছে এবং আমরা একটি নতুন চলচ্চিত্র ঘোষণা করার পরিকল্পনা করছিলাম।

ভিডিওতে বাবুশান বলেছেন, ‘আমি জানতাম না যে আমার পরিবারে এতটা তিক্ততা ছিল। আমার পরিবারের কোনও সমস্যা থাকলে আমি সেই সিনেমা করব না। প্রয়োজনে ভবিষ্যতে কোনও অভিনেত্রীর সঙ্গেই সিনেমা করব না।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here