পরেশ পাল

দুই পরেশের খবর এখন প্রতিটা মিডিয়ার হট টপিক। দু’জনেই তৃণমূল বিধায়ক। ভোট পরবর্তী হিংসা মামলায় বেলেঘাটার বিধায়ক পরেশ পালকে সিবিআই জেরা করেছে। আরেকজন মেখলিগঞ্জের বিধায়ক এবং রাজ্যের মন্ত্রী পরেশচন্দ্র অধিকারী। যিনি সিবিআই দফতরে আসার কথা থাকলেও এখন তার খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না। উত্তরবঙ্গ থেকে কলকাতা আসার পথে কন্যাসহ বর্ধমান স্টেশন থেকে উধাও হয়ে যান তিনি৷ তার বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রভাব খাটিয়ে মেয়েকে বেআইনিভাবে শিক্ষিকা হিসাবে নিয়োগ করিয়েছেন। অর্থাৎ এসএসসি দূর্নীতিতে নাম রয়েছে তার।

এসএসসি দুর্নীতি মামলায় জড়িয়ে কাঠগড়ায় মন্ত্রী পরেশ অধিকারী এবং তার মেয়ে। এসএসসি তফসিলি মেধা তালিকা থেকে ববিতা বর্মণের নামের বদলে পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীর নাম তালিকার প্রথম স্থানে দেখা যায়। তাই বুধবার রাত আটটার মধ্যে তাদের সিবিআই দফতরে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয় কলকাতা হাইকোর্টের তরফ থেকে। এই নির্দেশ শোনার পরেই উত্তরবঙ্গ থেকে সকন্যা পদাতিক এক্সপ্রেসে ওঠেন মন্ত্রী পরেশ অধিকারী।

সিবিআই

কিন্তু সেই ট্রেন কলকাতায় পৌঁছলেও পরেশ অধিকারী বা তার মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীর কোনও দেখা মেলেনি। সূত্রের খবর বর্ধমান সার্কিট হাউসে কিছুক্ষণের জন্য ছিলেন মন্ত্রী ও তার অভিযুক্ত কন্যা। তারপর গাড়ি করে বেড়িয়ে যান এবং মন্ত্রীর ফোন সুইচ অফ ছিল বলে খবর।অন্যদিকে ২ মে বিধানসভার ফলাফল ঘোষণার পর রাজ্যে বহু জায়গায় হিংসার ঘটনা ঘটে। তার মধ্যে অন্যতম বিজেপি কর্মী অভিজিৎ সরকারের মৃত্যু।

তার মৃত্যুর জন্য পরেশ পাল দায়ী বলে অভিযোগ করেন মৃতের দাদা৷ ভোট পরবর্তী হিংসার তদন্ত করছে সিবিআই। সেই তদন্তের জন্যই তাকে ডাকা হয়। যদিও পরেশ অধিকারীর মতো হাজিরা এড়াননি তিনি। তবে এই মুহূর্তে দুই পরেশের ভাগ্যই যে সিবিআই এর হাতে। সেকথা বলাই যায়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here