সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় না উত্তম কুমার, বাংলা চলচ্চিত্রের জগতে সর্বকালের সেরা অভিনেতা কে? দুই অভিনেতার সঙ্গে সঙ্গে এই প্রশ্নও চিরকালীন। আজও চায়ের কাপ হাতে যে কোনো সান্ধ্য আসর জমিয়ে তোলার জন্য এই প্রশ্নের হালকা আভাসটুকুই যথেষ্ট।

সৌমিত্র
Hindustan times bangla news

বস্তুত উত্তম কুমার বা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বাংলা চলচ্চিত্রে অবদান নিয়ে কোনো প্রশ্ন তোলাই সমীচীন নয়। দুজনেই বহু সময় ধরে ছিলেন বাংলা চলচ্চিত্র জগতের একচেটিয়া ধারক ও বাহক। এক কথায় বলা চলে ৯০-এর দশকে বাংলা চলচ্চিত্র জগতের উত্থানই ঘটেছিল উত্তম সৌমিত্র জুটির কাঁধে ভর করেই।

18 33 47 images
Daily sun

উত্তম কুমারের সঙ্গে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের বয়সের ব্যবধান ছিল বেশ খানিকটা।প্রায় ৯ বছর। রূপোলী পর্দায় উত্তম কুমারের আত্মপ্রকাশ ১৯৪৮ সালে।’দৃষ্টিদান’ ছবিতে প্রথম অভিনয় করেন তিনি। সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের প্রথম ছবি ১৯৫৯ সালে সত্যজিৎ রায় পরিচালিত ‘অপুর সংসার’। দীর্ঘদিন নিজেদের প্রতিভার জোরে একের পর এক অসাধারণ অভিনয় উপহার দিয়ে গেছেন দুজনেই।

18 32 52 images
anandabazar

কিন্তু আজ আর কেউই নেই আমাদের মাঝে।১৯৮০ সালে ‘ওগো বধূ সুন্দরী’ ছবির শ্যুটিং চলাকালীন আকস্মিক এক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান বাঙারি দর্শকের প্রিয় উত্তম কুমার। আর সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে বাঙালি হারালেন এই সেদিন, ২০২০-র অভিশপ্ত বছরের শেষ দিকে। দুজনের জনপ্রিয়তাই আকাশচুম্বী হলেও সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে কেউ কেউ উত্তম কুমারের চেয়ে বেশ কিছু ক্ষেত্রে এগিয়ে রাখেন। কী সেই কারণ? আজ চোখ রাখব তাতেই।

১) সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং সত্যজিৎ রায়:

18 32 01 Z
anandabazar

কিংবদন্তি চলচ্চিত্র পরিচালক সত্যজিৎ রায় নিজের অধিকাংশ ছবিতেই নায়ক হিসেবে বেছে নিয়েছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কেই। অপুর সংসার থেকে শুরু করে ফেলুদা সিরিজ, ঘরে বাইরে, চারুলতা কিংবা অশনি সংকেত, একচেটিয়া সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং সত্যজিৎ রায়ের জুটিই দেখা যেত ৯০-এর বাংলায়। উত্তম কুমার অভিনীত সত্যজিৎ রায়ের প্রথম ছবি ‘নায়ক’। এছাড়া আর একটি মাত্র ছবিতেই সত্যজিৎ রায়ের সঙ্গে কাজ করেছেন উত্তম কুমার, তা হল ‘চিড়িয়াখানা’। যদিও শোনা যায়, ঘরে বাইরে ছবির জন্য সত্যজিৎ রায় প্রথমে উত্তম কুমারকে প্রস্তাব দিয়েছিলেন, কিন্তু যে কোনো কারণেই হোক তা সম্ভব হয় নি। যাই হোক,অস্কার বিজয়ী পরিচালকের ‘প্রিয়’ নায়ক হওয়ায় সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে এগিয়ে রাখেন অনেকেই।

২) সৌমিত্র – উত্তম ঘরানা:

18 32 24 images
aj tak bangla

বস্তুত, বিভিন্ন রকমের ছবিতেই সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায় এবং উত্তম কুমার অভিনয় করলেও তাঁদের স্ক্রিপ্ট নির্বাচনে মূলত দুটি পৃথক ঘরানা লক্ষ করা যেত। একটি ছিল বাণিজ্যিক ঘরানা এবং অন্যটি শৈল্পিক। চলচ্চিত্র জগতে বাণিজ্যিক এবং শৈল্পিক ঘরানার দ্বন্দ্ব চিরকালীন। আর এই দ্বন্দ্বে কিছুটা হলেও এগিয়ে থাকবেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়।

৩) সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের চরিত্র নির্বাচন:

18 36 23 images
the quint

উত্তম কুমারের মতো নায়ক সুলভ ক্যারিশমা কোনোদিনই ছিল না সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের। বরং তিনি ছিলেন অনেক বেশি ইন্টেলেকচুয়াল। তাই পর্দায় যে সমস্ত চরিত্র তিনি ফুটিয়ে তুলতেন তাঁরা বেশিরভাগই ছিলেন মধ্যবিত্ত ঘরের স্ট্রাগল করা যুবক। রোমান্সের জগতে নয়, তাঁরা বিরাজ করতেন বাস্তবএর কঠিন মাটিতে। অপরদিকে উত্তম কুমারকে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা গেছে ধনী ব্যবসায়ী কিংবা ধনী পরিবারের সন্তান হিসেবে, সোনার চামচ মুখে নিয়ে জন্মে যিনি কেবল নায়িকার সঙ্গে রোমান্সে মত্ত। চরিত্র চিত্রায়নের দিক থেকে তাই নিঃসন্দেহে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে এগিয়ে রাখেন বিশেষজ্ঞরা।

৪) সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অভিনয় জীবন:

18 33 25 images
news18

সেই ১৯৫৯ সালের বাংলায় গালে হালকা দাড়ি নিয়ে রূপোলী পর্দায় দাঁড়িয়েছিল যে অপু, তাঁকে কি আদেও কখনো ভুলতে পারবে বাঙালি? সেই থেকে একটানা ২০২০ সাল পর্যন্ত অভিনয় করে গিয়েছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। ৬০ বছরের কাছাকাছি দীর্ঘ এই অভিনয় জীবন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়কে এগিয়ে রেখেছে উত্তম কুমারের থেকে। উত্তম কুমার পর্দায় অভিনয়ের সুযোগ পেয়েছেন মাত্র ৩২ বছর। অর্থাৎ সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের প্রায় অর্ধেক। ফলে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অভিনীত ছবির সংখ্যাও প্রচুর। এ প্রসঙ্গে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের ২০১৫ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ছবি ‘বেলাশেষে’র কথা বিশেষ ভাবে উল্লেখযোগ্য।

৫) সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের এক্সপেরিমেন্ট:

18 34 44 images
pinterest

দীর্ঘ অভিনয় জীবন জুড়ে বাংলা চলচ্চিত্রে নানা ধরনের পরীক্ষা নিরীক্ষা চালানোর সুযোগ পেয়েছেন সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়। কিন্তু উত্তম কুমারের কাছে সেই সুযোগ তুলনামূলক কম ছিল। সর্বোপরি বৃদ্ধ বয়সের যে সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের ছবি আমাদের মনে গাঁথা রয়েছে, উত্তম কুমারের ক্ষেত্রে সেই সুযোগ আমরা পাই নি।

সবশেষে বলা যায়, বাঙালি রোজনামাচায় ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান, ইলিশ-চিংড়ির মতোই উত্তম-সৌমিত্রের দ্বন্দ্ব চিরকালীন। কিছু প্রশ্নের উত্তর যেমন অধরাই থেকে যায়, ‘উত্তম কুমার এবং সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের শ্রেষ্ঠত্বের প্রশ্নও অনেকটা তেমনই। দুই কিংবদন্তিই ইহলোক ত্যাগ করেছেন, কিন্তু আপামর সিনেমা প্রেমী বাঙালির মনে তাঁরা অমলিন থেকে যাবেন আজীবন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here