fbpx
Home বিধানসভা নির্বাচন পশ্চিমবঙ্গ প্রচারে খাটছেন, কিন্তু জিততে কি পারবেন শ্রাবন্তী!

প্রচারে খাটছেন, কিন্তু জিততে কি পারবেন শ্রাবন্তী!

Srabonti Chatterjee

১৯৯৭ সাল থেকে টলিউডে। ২০০৩ সাল থেকে নায়িকা হিসেবে টলিউড। টলিউডের মিষ্টি নায়িকা হিসেবে পরিচিত শ্রাবন্তী চ্যাটার্জি এবার ভোটে প্রার্থী। ১০ এপ্রিল, শনিবার রাজ্যে চতুর্থ দফার ভোটের আগে আজ শেষ রবিবারের প্রচারে ঘাম ঝরালেন শ্রাবন্তী। লড়াইটা কঠিন শ্রাবন্তীর। কারণ তাঁর বিরুদ্ধে প্রার্থী পার্থ চ্যাটার্জি, যিনি বেহালা পশ্চিমে ভোটে দাঁড়িয়ে কখনও হারেননি। তার ওপর আবার মন্ত্রী পার্থের কেন্দ্রে লোকসভায় তৃণমূলের লিড ভালই ছিল। এই এলাকার ঘরের মেয়ে শ্রাবন্তী প্রচারটা অনেক পরে শুরু করেছেন। এলাকা ঘুরে শ্রাবন্তীর দেওয়াল লিখন কম চোখে পড়ল, ফ্লেক্সে অবশ্য তিনি আছেন।

দেরীতে প্রচার শুরু করলেও যতটা সম্ভব তাঁর কেন্দ্রের এলাকায় ঘোরার চেষ্টা করছেন শ্রাবন্তী। স্থানীয় বিজেপি নেতারা বলছেন, প্রচার ভালই হচ্ছে। শ্রাবন্তী সময়ই ভালই দিচ্ছেন। ফাইট ভালই হবে। সেলফির আবদার মেটাতে মেটাতে প্রচারের ফাঁকে শ্রাবন্তীকেও আত্মবিশ্বাসী দেখালো। যদিও প্রচারের বহরে অনেকটাই এগিয়ে পার্থ। হুডখোলা গাড়িতে চড়ে তাঁর প্রায় পুরো কেন্দ্রই চষে ফেলেছেন পার্থ। পার্থর জনসভাতে ভাল ভিড়ও হচ্ছে।

আরও পড়ুন: দলাদলীর বাজারে নজর কাড়ছেন এই নির্দল প্রার্থী, উত্থানকাহিনি শুনলে চমকে যাবেন

এলাকার পুরনো-নতুন কাউন্সিলাররাও বেশ ভালই খাটছেন পার্থর হয়ে। ২০০১ সাল থেকে টানা চারবার এখান থেকে জিতে এসেছেন তিনি। গতবার ব্যবধান বেশ কিছুটা কমে ৯ হাজারের মত হয়ে যায়। যেটা ২০১১ বিধানসভায় ছিল প্রায় ৬০ হাজারের কাছাকাছি। তবে ২০১৯ লোকসভায় এই কেন্দ্রে তৃণমূলের ১৭ হাজারের লিডটা স্বস্তিতে রাখছে রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রীকে। শ্রাবন্তীকে আবার খুশিতে রাখছে গত তিন বছরের মধ্যে এই কেন্দ্রে বিজেপির ৫৮ হাজারের মত ভোট বাড়াটাকে। এই কেন্দ্রে সংযুক্ত মোর্চার সিপিএম প্রার্থী নীহার ভক্ত খুব পরিশ্রম করছেন। গত তিন বছরে সিপিএমের এই কেন্দ্রে ভোট কমেছে ৬০ হাজারের মত। এক সময় বেহাল ছিল সিপিএমের দুর্গ। সেই দুর্গে বিশ্বাস ফেরানোর জন্য খুব পরিশ্রম করছেন নীহার। তীব্র গরমে ঘাম মুছে ভোটারদের দোরে দোরো ঘুরে নিহার বোঝাচ্ছেন, দুই ফুলই বিষাক্ত, ফেরাতে হাল আনুন লাল।

তিন প্রার্থীই খুব পরিশ্রম করছেন। এবার ভোটাররা কাকে বেছে নেন সেটা দেখা যাবে ২ মে, ভোট গণনা শেষে।

২০১৯ লোকসভার বিচারে
এই কেন্দ্রে তৃণমূলের লিড ১৬ হাজারের মত। বিজেপির ভোট বেড়ে হয়েছে ৭৫ হাজার, ২০১৬ বিধানসভায় যা ছিল ১৮ হাজারের মত।

২০১৬ বিধানসভা
পার্থ চ্যাটার্জি (তৃণমূল) ১,০২,১১৪টি ভোট

কৌস্তভ চ্যাটার্জি (সিপিএম) ৯৩,২১৮টি ভোট

হরিকৃষ্ণ দত্ত (বিজেপি) ১৭,৯৬২টি ভোট

পার্থ চ্যাটার্জি জিতেছিলেন ৮,৮৯৬ ভোটের ব্যবধানে।

গত চারটি বিধানসভায় পার্থ চ্যাটার্জি (তৃণমূল)-র জয়ের ব্যবধানে

২০০১: ৮,৮৯৬ ভোটের ব্যবধানে
২০০৬: ৫৭২৭ ভোটের ব্যবধানে
২০১১: ৫৯,০২১ ভোটের ব্যবধানে
২০১৬: ১৯,৪৭৭ ভোটের ব্যবধানে


NO COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here