fbpx
Home সম্পাদকীয় বৈশিষ্ট্যযুক্ত কিভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 2024 সালের যুদ্ধ জিতবেন? মন্ত্রিসভায় কেমন হবে সংশোধন?

কিভাবে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় 2024 সালের যুদ্ধ জিতবেন? মন্ত্রিসভায় কেমন হবে সংশোধন?

বাংলার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর সরকারে বড় ধরনের রদবদলের প্রস্তুতি নিয়েছেন। তিনি টিএমসি সংগঠনে অনেক মন্ত্রীকে স্থান দিয়েছেন এবং এখন তাদের সরকার থেকে সরিয়ে দেওয়ার প্রস্তুতি চলছে। তাদের জায়গায় চার থেকে পাঁচজন নতুন মন্ত্রীকে মন্ত্রিসভায় স্থান দেওয়া হতে পারে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের এই সিদ্ধান্তকে পরের বছর রাজ্যে পঞ্চায়েত নির্বাচন এবং তারপরে 2024 সালের লোকসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি হিসাবে দেখা হচ্ছে। সম্প্রতি, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকারের মন্ত্রী পার্থ চ্যাটার্জিকে ইডি গ্রেপ্তার করেছে এবং তার সহযোগী অর্পিতা মুখার্জির বাড়ি থেকে 50 কোটি টাকা নগদ ও বিপুল সোনা উদ্ধার করা হয়েছে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় -

টিএমসি জারি করা একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “চেয়ারম্যান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নেতৃত্বে জেলা সভাপতি ও চেয়ারম্যান পদে টিএমসি কিছু নতুন নিয়োগ করেছে।” মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ঘোষণার পর মন্ত্রী অসীমা পাত্র ও সৌমেন মহাপাত্রকে সংগঠনে পাঠানো হয়েছে। শুধু তাই নয়, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সরকার নতুন সাতটি জেলা তৈরির প্রস্তুতিও নিয়েছে। সোমবার মন্ত্রিসভার বৈঠকে এ প্রস্তাব অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। নতুন জেলার নাম হবে বেরহামপুর, কান্দি, সুন্দরবন, বসিরহাট, ইছামতি, রানাঘাট এবং বিষ্ণুপুর। এভাবে বাংলায় মোট জেলার সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াবে 30টি।

প্রশাসনিক কাজের উন্নতির জন্য এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা। বাংলার রাজনীতি যাঁরা বোঝেন, তাঁরা বলছেন, একদিকে মন্ত্রিসভায় রদবদল করে সামাজিক সমীকরণ মেটানোর চেষ্টা করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। অন্যদিকে নতুন জেলা তৈরি করে আঞ্চলিক পরিচয়কে পুঁজি করার চেষ্টা চলছে। বহুদিন ধরেই বাংলায় নতুন জেলা গঠনের দাবি ছিল। এমন পরিস্থিতিতে নতুন জেলা থেকে মন্ত্রী বদল করে আরও সমীকরণ উদ্ভুত করেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। শুধু তাই নয়, টিএমসি গঠনের এই মহড়াও দৃশ্যমান।

মন্ত্রিসভা রদবদলে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সম্পূর্ণ প্রতিচ্ছবি দেখা যাচ্ছে বলে টিএমসি সূত্রে জানা গিয়েছে। তাঁর নির্দেশেই কাজে দুর্বল মন্ত্রীদের সরিয়ে দিয়ে সংগঠনে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। এ ছাড়া এমন অনেক নেতা যারা এখন পর্যন্ত দলে কাজ করছেন, তাদের সরকারে দায়িত্ব দেওয়া হবে। নতুন এবং পুরানো নেতাদের মধ্যে ভারসাম্য তৈরি করে জেলাগুলিতে টিএমসির নতুন দল গঠন করা হয়েছে। কোচবিহার, দক্ষিণ দিনাজপুর, নদীয়া দক্ষিণ, ঝাড়গ্রাম সহ অনেক জেলায় সংগঠনে বড় ধরনের রদবদল করা হয়েছে।

NO COMMENTS

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here